খেলা সর্বশেষ সংবাদ

বক্সিং ডে ম্যাচে দ্বিতীয় জয় পেলো গাইবান্ধার ছেলেরা ইস্কাটন সবুজ সংঘ – THCA, গাইবান্ধা

মো: নাসিব হোসেন

ঢাকা লীগে জাহাংগীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে, নিজেদের ৬স্ঠ খেলায় জয় ছিনিয়ে নিলেন গাইবান্ধা জেলার মেধাবী ক্রিকেটার নিয়ে গরা এবারের ইস্কাটন সবুজ সংঘ সার্বিক পরিচালনার দায়িত্বে থাকা গাইবান্ধা জেলা দলের কৃতি খেলোয়ার আসাদুল হাবিব সুজনের লক্ষ্য দলকে পরবর্তী রাউন্ডে নিয়ে যাওয়া।

সিটি ক্লাব ও এই জাহাংগীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় মাঠেই, পর পর দুই ম্যাচে জয়ের খুব কাছে যেয়েও হেরে যাওয়ায়, দলের পারফরমেন্স নিয়ে নানাবিধ প্রশ্নের সম্মুখিন হন দলের কোচ আসাদুল হাবীব সুজন ও অফিসিয়াল জনাব মাহেদুল ইসলাম বাসেত। কোচ এবং অফিসিয়াল, দলের হারের কারন হিসাবে দায়িত্বহীন ব্যাটিং ও এলোমেলো বোলিং করাকেই দায়ী করেছেন শেস দুইটি ম্যাচে। এ ম্যাচে ভাল কিছু করার জন্য আশা ব্যাক্ত করেছিলেন দলের অধিনায়ক এবং কোচশেসে বক্সিং ডে ম্যাচে শেস হাসিটা হাসলেন দলের সবাই।

আজকের ম্যাচে রাইজিং স্টার ক্রিকেট ক্লাবের সাথে টসে হেরে ব্যাটিং এ যাওয়া দলটির রান মেশিন গোলাম কবির রাসেলের (মহিমাগন্জ) করা ৮৫ রান, রিফাত চৌধুরীর ৪০, শিহাব উদ্দিন ৩১, আবু শিহাব প্রধান ৪২ এবং গাইবান্ধা জেলা দলের হয়ে খেলা সাদাফ চৌধুরীর করা ৩০ রানের ঝরো ইনিংসে ৫০ ওভারে ২৮৬/৯ বিশাল রানের পাহার গরতে সক্ষম হয় ইস্কাটন সবুজ সংঘ। জবাবে রাইজিং স্টার ক্রিকেট ক্লাব শুরুতেই বিপর্যয়ের মুখে পরে মাত্র ১৩ রানে প্রথম উইকেট এবং ১৮ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারানোর পর মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানরা হাল ধরতে সক্ষম হন। শাহরিয়ার ইসলাম ও শৌরভের ৪৪ ও ৪৫ রানের ইনিংসটি রাইজিং স্টার ক্লাবকে জয়ের সপ্ন দেখায়।  পরে মহিমাগন্জের ছেলে মোহাম্মদ মোস্তাফিজের করা দুর্দান্ত তিনটি বলে তিনজন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান আউট হয়ে গেলে ইস্কাটন সবুজ সংঘের জন্য জয়ের লক্ষ্য খুব কাছে চলে আসে। লোয়ার অর্ডারে, তুহীনের করা ২৪ রান ও আব্দুল্লাহ আল রাফির করা ৩৫ এর বরো রানের পার্টনারশীপ ভাংগেন মশিউর রহমান মোশারফ ও অলরাউন্ডার গোলাম কবির রাসেল। অবশেসে রাইজিং স্টার ক্লাব ২১৮ রানেই গুটিয়ে যায় এবং ৬৮ রানের জয় পায় ইস্কাটন সবুজ সংঘ। এ জয়ে পরবর্তী রাউন্ডে খেলার আশা এখন জিবীত রাখল ইস্কাটন সবুজ সংঘ।

কোচ হিসাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড পরিচালিত লেভেল২ কোচিং করা আসাদুল হাবীবের সপ্ন জেলার ক্রিকেট, গ্রামে গন্জে মেধাবী ক্রিকেটার বাছাই করে তাদেরকে দেশের বরো পরিসরে ক্রিকেট খেলার সুযোগ করে দেয়া। গাইবান্ধা জেলার সার্বিক ক্রিকেট উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য ভুমিকা পালনে সচেস্ট দলের কোচ ও ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমি গাইবান্ধা।