খেলা সর্বশেষ সংবাদ

গোলাম রাসেলের শতকে – ঢাকা জয় ট্যালেন্টহান্ট ক্রিকেট একাডেমি গাইবান্ধা

মো: নাসিব হোসেন

এক ঝাক তরুন ক্রিকেটার নিয়ে গরা এ বছরের ইস্কাটন সবুজ সংঘ ক্লাব, ঢাকা। পেশাদারী লিগে খেলার সু্যোগ এ প্রথম পেলো একসাথে গাইবান্ধা জেলার ১৮ জন তরুন উদীয়মান খেলোয়ার গন। সদর, মহিমাগন্জ, গোবিন্দগন্জ থানার ছেলেদের নিয়ে গঠন করা এ দলের কোচ হিসাবে রয়েছেন গাইবান্ধার ছেলে আসাদুল হাবীব সুজন (প্রাক্তন গাইবান্ধা জেলা দল, ঢাকা নবীন সংঘ, ঢাকা ইস্কাটন সবুজ সংঘের প্রাক্তন খেলোয়ার)। তার প্রয়াস ও অদম্য চেস্টায় ২০১৫ সালেই তৈরী হয় ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমি গাইবান্ধা। প্রথম থেকেই উদ্দেশ্য ছিলো জেলার মেধাবী খেলোয়ারদের ঢাকা লিগে সুযোগ করে দেয়া এবং পেশাদারী ক্রিকেট এর জন্য খেলোয়ার তৈরী করা।

গ্রাম পর্যায়ের তরুন ছেলেদের বাছাই করে প্রশিক্ষন দেয়া শুরু হয় এবং তখন থেকেই লক্ষ্য নির্ধারন করা হয় “ঢাকা লিগ” এ খেলার। অবশেসে, ইস্কাটন সবুজ সংঘ থেকে সুযোগ মেলে কোচের দায়িত্ব ও দল গঠনের – কঠিন পরিশ্রম, যুগপোযোগী প্রযুক্তি, সকাল-বিকাল প্রশিক্ষন দিয়ে এ দলের সমস্ত দায়ভার নেন আসাদুল হাবীব সুজন।

অভিষেক ম্যাচে লরাই করে হারার পরেই, দলের সকল খেলোয়ার যেনো মরিয়া হয়ে পরে লিগের দ্বীতীয় ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দেয়ার জন্য। গত ২৮ই অক্টোবর ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয় মাঠে ওরিয়েন্ট একাডেমির বিপক্ষে, ছেলেদের মনমুগদ্ধকর নৈপুন্যে ৮ উইকেটের বিশাল জয় পায় ইস্কাটন সবুজ সংঘ। মহিমাগন্জের তিন কৃতি শন্তান গোলাম রাসেলের শতক, লাপ্পুর করা ৪৬ রান এবং মোস্তাফিজুর রহমান (মোস্তা) বোলিং এ ৪ উইকেট  নেয়ার মাধ্যমে প্রথম জয় নিশ্চিত হয়।

আগামীকাল ৩১ শে অক্টোবর, ঢাকা সিটি ক্লাব মাঠে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে খেলতে নামবে গাইবান্ধা জেলার ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম “ঢাকা জয়” করা এ দলটি।

কোচ আসাদুল হাবীব সুজন, মাহেদুল ইসলাম বাসেত (অফিসিয়াল) দের লক্ষ্য তরুন ও মেধাবীদের সুযোগ করে দেয়া, যাতে করে গ্রাম থেকে আরো বরো বরো ক্রিকেটার বেরিয়ে আসতে পারে যারা কি না ভবিষ্যতে ক্রিকেট বিশ্বে এ দেশের সুনাম অর্জনে উল্লেখযোগ্য ভুমিকা পালন করতে পারেন।