প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য চান অপু

  • mynews
  • ডিসেম্বর 6, 2017

স্বামী শাকিব খানের তালাকের নোটিশ পাঠানোর ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহায়তা চাইলেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। বুধবার একটি জাতীয় দৈনিকের সাথে আলাপকালে শাকিবের তালাককাণ্ডে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত সহনশীল ও সুবিবেচনাপ্রসূত মনের মানুষ। তাঁর সহমর্মিতা অতুলনীয়। শাকিবের একরোখা সিদ্ধান্তে আমার জীবন এখন বিপন্ন। প্রধানমন্ত্রীর সদয় হস্তক্ষেপই এই দুর্বিষহ অবস্থা থেকে আমাকে মুক্ত করতে পারে।’

এছাড়া মানবাধিকার ও নারী সংগঠনগুলোকেও পাশে চান অপু। বলেন, ‘সেলিব্রেটি হলেও আমার সামাজিক মর্যাদা আছে। ডিভোর্সের মতো একটি ন্যক্কারজনক সিদ্ধান্ত কখনো মেনে নেয়া যায় না। সংসারে ঝগড়া, ঝামেলা থাকাটা স্বাভাবিক। একই ধর্মের হলে শাকিবের সিদ্ধান্ত মেনে নিতাম। সে আমাকে জোর করে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করেছে। কাজেই, তার এই অমানবিক সিদ্ধান্ত কোনোভাবেই মেনে নেব না।’

হতাশা ব্যক্ত করে নায়িকা বলেন, ‘নিজের ধর্ম ত্যাগ করে শাকিবকে বিয়ে করেছি। এখন সে আমাকে তালাক দিতে চাচ্ছে। এখন আমি কোথায় গিয়ে দাড়াব? আমার সম্প্রদায় তো এখন আর আমাকে স্বাভাবিকভাবে মেনে নেবে না।’উল্লেখ্য, একাধিক অভিযোগ এনে গত ২২ নভেম্বর আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের মাধ্যমে অপু বিশ্বাসকে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব খান। প্রায় ১২ দিন পর গত সোমবার বিকালে সেটা প্রকাশ্যে আসে। নোটিশ পাঠানোর তারিখ থেকে তিন মাস পরে এই তালাক কার্যকর হবে।

আরো পড়ুন >> অপুর সংসার ভাঙায় মর্মাহত বর্ষা

বিভিন্ন অভিযোগ এনে স্ত্রী অপু বিশ্বাসকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন স্বামী শাকিব খান। এমন ঘটনায় অন্যদের মতো মর্মাহত হয়েছেন অনন্ত জলিল-পত্মী অভিনেত্রী আফিয়া নুসরাত বর্ষাও। মঙ্গলবার রাতে ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে সেই কথাই শেয়ার করেছেন নায়িকা। তিনি চান, শাকিব-অপুর সংসার যেন টিকে থাকে। এ ব্যাপারে তিনি বেশকিছু পরামর্শও দিয়েছেন।স্ট্যাটাসে বর্ষা লিখেছেন, ‘শাকিব-অপুর সংসার ভেঙে যাওয়ায় আমি একটু মর্মাহত হলাম। কারণ, অনেকগুলো সফল সিনেমার জুটি তারা। ভেবেছিলাম তাদের নিজেদের মাঝে যেটুকুই মনোমালিন্য হয়েছিল, তা নিজেরাই মিটিয়ে নিয়ে সুখের সংসার করবে। কিন্তু না, তার বিপরীত হলো।’

তিনি আরো লেখেন, ‘শাকিব খান হঠাৎ অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়ে তাদের ৯ বছরের সংসারকে ভেঙে দিলো। এতদিনের ভালোবাসার সম্পর্ককে এত সহজেই ছিন্ন করে দিলো, যা আসলেই মেনে নেয়া কষ্টকর। বিশেষ করে খারাপ লাগছে অপু বিশ্বাসের জন্য। কারণ, অপু নিজের পরিবার ও ধর্মকে দূরে ঠেলে শাকিবের কাছে এসেছিল। শাকিবের ওপর ভরসা রেখেই সব ছেড়ে সংসার করেছিল। কিন্তু তালাকনামা পাঠিয়ে সবকিছু সে নিমেষেই শেষ করে দিলো।’

শাকিব-অপুকে পরামর্শ দিয়ে অনন্ত-পত্মী লেখেন, ‘আমাদের একটা কথা মাথায় রাখা উচিত, আমরা যারা সেলিব্রেটি আছি, সাধারণ মানুষ তাদেরকে আদর্শ মানেন। আর সেই আদর্শের বিপরীতে আমরা যদি কিছু দিন পর পর এ রকম অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্ম দেই, তাহলে ভক্তরা কী শিখবে? কী ফলো করবে। আমাদের মতো সেলিব্রেটিদের উচিত একটু শাবানা ম্যাম, শাবনাজ-নাঈম, রাজ্জাক আঙ্কেলের দাম্পত্য জীবন অনুসরণ করা। কারণ, তারা একেকজন কিংবদন্তি হয়েও সুখের সংসার করে গেছেন।’

শেষ দিকে বর্ষা লেখেন, ‘আমি আশা করি সাকিব-অপু তাদের পুরনো দিনের স্মৃতিগুলো স্মরণ করে, সব কিছু ভুলে গিয়ে, ছোট্ট সন্তান জয়ের কথা চিন্তা করে, তার উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা ভেবে, নতুন করে সুখের সংসার শুরু করবে।’উল্লেখ্য, গত ২২ নভেম্বর আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের মাধ্যমে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন মেয়র কার্যালয়, অপু বিশ্বাসের ঢাকার নিকেতনের বাসা এবং বগুড়ার ঠিকানায় স্ত্রী অপুকে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব খান। তবে গত সোমবার বিকালে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। আইন মতে, নোটিশ পাঠানোর তারিখ থেকে তিন মাস পরে এই তালাক কার্যকর হবে।

Previous «
Next »
ডিসেম্বর 2017
সোম বুধ বৃহ. শু. শনি রবি
« নভে.    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031